অনলাইন থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় ? ইন্টারনেট থেকে ইনকামের সেরা গাইডলাইন

অনলাইন থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়
অনলাইন থেকে ইনকাম

আমরা কিন্তু সবাই চাই লেখাপড়ার পাশাপাশি বা কাজের পাশাপাশি এক্সট্রা একটা ইনকাম থাকুক। আবার অনেকেই চায় সবকিছু বাদ দিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে ভাল একটা ক্যারিয়ার গড়তে। বর্তমান ডিজিটাল যুগে ইন্টারনেট হচ্ছে অন্যতম একটি আয়ের উৎস। এখানে বাস্তব জীবনের মত চাকরি ও ব্যাবসা দুটোই করা যায়। ইন্টারনেটের সাহায্যে কাজ করে টাকা ইনকাম করাই হচ্ছে অনলাইন ইনকাম।

অনলাইন ইনকাম দুই ধরনের হতে পারে

  1. অস্থায়ী
  2. স্থায়ী



অস্থায়ী

আমাদের মাঝে অনেকে আছে যে সবসময় ভাবে কিভাবে শর্টকাটে ইনকাম করা যায়। বেশি না সারাদিনে ১০০ টাকা ইনকাম হলেই হবে। তারা এই ধরনের কাজ করতে পারে। এটি একটি ওয়ান টাইম ইনকাম এর পদ্ধতি। যেমন মোবাইলে অ্যাপের মাধমে, অ্যাডে ক্লিক করে ইনকাম। এতে খুব কম সময়ে, কোন কাজ না জেনেই ইনকাম করা যায়। এবং ইনকাম এর পরিমাণ খুবই কম।

এখানে স্থায়ী ইনকাম নিয়ে আলোচনা করা হল। ওয়ান টাইম ইনকাম কিভাবে করে এই বিষয়ে জানতে চাইলে নিচে কমেন্ট করে জানান।

স্থায়ী

এটি একটি লাইফ টাইম ইনকাম পদ্ধতি। অনলাইনে এই কাজ করতে হলে আমাদেরকে অবশ্যই ইংরেজি জানতে হবে। এবং আমাদের কনভারসেশন স্কিল খুবই ভালো থাকতে হবে। এর কারণ হচ্ছে যে আমরা যাদের সাথে কাজ করব তারা ইন্টারন্যাশনাল বায়ার এবং ইন্টারন্যাশনাল ল্যাঙ্গুয়েজ হচ্ছে ইংলিশ। তারা অবশ্যই আমাদের সাথে বাংলা ভাষায় কথা বলবে না।

তো সবচেয়ে জরুরী এবং গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে আমাদের ইংলিশ স্কিল খুবই ভালো থাকতে হবে এরপর যা জানা লাগবে তা হচ্ছে আমরা যা করব অর্থাৎ আমাদের কর্মদক্ষতা।
অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন অনলাইনে কি কাজ করব?
আপনি কি কাজ করবেন তা কি আমি জানি?
তাহলে আপনাকে আমি তিনটা প্রশ্ন করি-

  • আপনার মাঝে কি দক্ষতা আছে তা কি আমি জানি?
  • আপনি কোন কাজ করতে পছন্দ করেন তা কি আমি জানি?
  • আপনার পেশা কি আপনি কি করেন তা কি আমি জানি?

অবশ্যই না !

যেহেতু আমি আপনার সম্পর্কে কিছুই জানিনা তো আপনার সম্পর্কে কে ভালো জানে নিশ্চয় আপনিই জানেন-
যদি আমি সঠিক হয়ে থাকি তবে আপনার মাঝে কোন গুণটি রয়েছে এবং আপনি কোন কাজে দক্ষ তা আপনি ভাল জানেন। হয়তো আপনি ভালো ডিজাইন করতে পারেন, হয়তো আপনি অনেক ভালো ইংলিশ আর্টিকেল লিখতে পারেন, হয়তো আপনি প্রোগ্রামিং জানেন, হয়তো আপনি মার্কেটিং এ দক্ষ হয়তবা আপনি কিছুই জানেন না। আপনি কাজগুলো শিখতে চাচ্ছেন।

যদি আপনি তাদের মধ্যে হয়ে থাকেন যে কিছুই জানে না। তাদের জন্য আমার পরামর্শ হলো, আপনি প্রথমে কিছু শিখেন তারপরে অনলাইনে দিকে অগ্রসর হবেন। আর যদি আপনি তাদের মধ্যে হয়ে থাকেন যে কোন কাজে দক্ষ। এবং আপনি ওই কাজটি খুব ভালো করে করতে পারেন। তাহলে আপনি কাজ শুরু করার জন্য প্রস্তুত।

আপনি অনলাইনে ইনকাম করতে চাচ্ছেন কিন্তু ভেবে পাচ্ছেন না অনলাইনে কিভাবে কাজ করবেন বা কোন সেক্টর এ কাজ করবেন। অনলাইনে অনেক সেক্টর আছে কিন্তু যে কাজের চাহিদা বেশি সেরকম কয়েকটি কাজের নাম আমি নিচে উল্লেখ করলাম :

আপনি যদি কোনো কাজ না জেনে অনলাইনে কাজ করতে চান। তবে এটা আপনার এবং এই দেশের জন্য দুর্নাম বয়ে আনবে। তার কারণ হচ্ছে ইন্টারন্যাশনাল বায়াররা জানেন এশিয়ান দেশগুলো, বিশেষ করে দক্ষিণ এশিয়ার অনেক দেশ রয়েছে তাদের আয় অনেক নিম্ন এবং তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা অনেক কম।

যার কারণে অনেক সময় দেখা যায় যে তারা সব পোস্টে উল্লেখ করে দিয়েছে এই এই দেশগুলো থেকে কেউ এপ্লাই করবেন না। কারণ তারা জানে যে তাদের কাজের মান ভালো না এবং ইংলিশে দক্ষ নন। তারা যে কাজ করে দিবে তা ইন্টারন্যাশনাল মানসম্পন্ন হবে না।

এখন আপনি যদি অনলাইনে কাজ করার প্রস্তুতি নিয়ে থাকেন। এবং কাজ করা শুরু করে দেন কোন দক্ষতা ছাড়াই। এতে আমাদের সবারই ক্ষতি হবে তার কারণ মার্কেটপ্লেস নষ্ট হবে। এবং ভবিষ্যতে আমরা কোন কাজ পাবো না। আর যদিও পেয়ে থাকি তবে অনেক কম কাজ পাবো। কিংবা অনেক কম রেটে কাজ আমাদের করতে হবে।

এখন মূল কথা হচ্ছে যে অনলাইনে কাজ করতে হলে আমাদের অবশ্যই খুব ভালো ইংলিশ এবং কাজ জানতে হবে। আপনি যদি কাজ করতে আগ্রহী হন, আপনি কি কাজ করতে পারেন এবং ভালো করে করতে পারবেন তা প্রথমে খুঁজে বের করুন। তারপর কাজ শিখে কিংবা আপনার যদি দক্ষতা থাকে তবে কাজ করা শুরু করে দিন হয়ে জান একজন অনলাইন প্রফেশনাল।

অনলাইন এর কাজ কাদের জন্য?

অনলাইন এর কাজ উন্মুক্ত। এখন কথা হচ্ছে আপনি এইখানে কাজ করার যোগ্য কিনা? অনলাইনে কাজ করার জন্য প্রথমে আমাদেরকে যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। যোগ্যতা কিভাবে অর্জন করতে হয় তা যদি ভেবে থাকেন তাহলে আমি বলব তার জন্য ভালো করে ইংলিশ চর্চা করুন। প্রয়োজনবোধে ইংলিশ কোর্সে ভর্তি হতে পারেন।

আর যদি আপনার ইংলিশ খুব ভালো হয়ে থাকে। আপনার লিসেনিং এবং স্পিকিং স্কিল যদি খুব ভালো হয়ে থাকে। তাহলে আপনি একধাপ এগিয়ে আছেন অনলাইনে কাজ করার জন্য। এখন আপনাকে শুধু কি কাজ করতে হবে এবং আপনি কি কাজ করতে আগ্রহী। তা শিখে অনলাইন প্রফেশনে নেমে পড়তে পারেন।

অনলাইনে মূলত দুইভাবে কাজ করা যায়

  1. ফুলটাইম এবং
  2. পার্ট টাইম

আপনাকে প্রথমে সময় নির্ধারণ করতে হবে কাজ করার জন্য। এখন নিজেই বিবেচনা করে দেখেন কিভাবে কাজ করবেন ফুলটাইম নাকি পার্ট টাইম।

যদি ফুলটাইম কাজ করতে চান, তাহলে অনলাইনে কাজ করার পাশাপাশি আমি আপনাকে আরো কিছু কাজ করার জন্য উপদেশ দেবো। কারণ প্রাথমে কিছু না করতে পারলে আপনি হতাশ হয়ে যেতে পারেন। এবং তখন আপনার আর অনলাইনে কাজ করার কোন ইচ্ছা হবে না।

আর আপনি যদি পার্টটাইম কাজ করতে চান। তবে আপনি শুধু নির্ধারিত একটা সময় বেছে নিবেন। প্রতিদিন শুধু ওই সময়টুকু আপনি অনলাইনে কাজ করার জন্য এবং শিখার জন্য ব্যয় করবেন। তখন আর কোন কাজ করবেন না। কারণ তার জন্য হয়তো আপনার ডেডিকেশন এবং কাজ করা মেন্টালিটি নষ্ট হয়ে যেতে পারে। খেয়াল রাখবেন যেন আপনি যে প্রফেশনেই থাকেন না কেন আপনি এমন কোনো কাজ করবেন না যাতে যার জন্য আপনার ওই কাজের ব্যাঘাত ঘটে।

অনলাইনে কিভাবে কাজ শুরু করব?

অনলাইনে কাজ করার জন্য আপনাকে প্রথমে জানতে হবে যে আপনি অনলাইনে কাজ করার জন্য প্রস্তুত কিনা। প্রস্তুত হলে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে যেমন Freelancer, Upwork, Fiverr, People per hour এ অ্যাকাউন্ট খুলে আপনার দক্ষতা অনুযায়ী কাজের উপর বিড করতে হবে। স্মার্ট হতে হবে, প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার মত ক্ষমতা থাকতে হবে। বায়াররা অবশ্যই আমাদের চাইতে বেশি স্মার্ট তাই তাদের কাজ আমাদের দ্বারা করাচ্ছে। নয়তো তারা এ কাজ তাদের হাতের নাগালে তাদের পরিচিত লোক দ্বারা করাত।

কিন্তু তারা এ কাজটি করেন না। কারণ হচ্ছে তারা চায় কাজটি খুবই দ্রুত সম্পন্ন হোক। কাজটি খুবই ভালো করে এবং খুবই অল্প টাকার মধ্যে হোক। এবার একটু ভেবে বলেন স্মার্ট কে? আপনি নাকি আপনার বায়ার।

যেহেতু আপনার বায়ার স্মার্ট। সেহেতু আপনাকে স্মার্ট হওয়ার লাগবে। এই কারণে যেহেতু সে আপনাকে কাজ দিবে, সেহেতু আপনার সাথে যেন আপনার বায়ারের সম্পর্ক অনেক ভালো থাকে। যেন আপনাকে কাজটি দেয়। তার জন্য বায়ারের জবপোস্টিং এ বুঝে শুনে অ্যানসার দিতে হবে।

প্রজেক্ট এ অ্যাপ্লাই করার সময় আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে যে বায়ার কি চায়। তার কি কি দরকার কি কি দরকার নেই। তার প্রজেক্ট এর বাজেট কত, আপনি এসব বিষয় দেখে তারপর এপ্লাই করবেন। ইনশাল্লাহ আপনার জব পাওয়ার আশঙ্কা অনেকটাই থাকবে।

আশা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন অনলাইনে কাজ করার জন্য কিভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে এবং কিভাবে আপনারা অনলাইন প্রফেশনাল হতে পারবেন। তবে মনে রাখতে হবে অনলাইনে কাজ করে রাতারাতি কোটিপতি হওয়ার সুযোগ নেই।

এখানে প্রথম অবস্থাই একজন চাকরিজীবীর চাইতে বেশি পরিশ্রম করতে হবে। অনেক রাত জেগে কাজ করতে হবে। তারপর ধিরে ধিরে ইনকাম বাড়তে শুরু করবে এবং পরিশ্রম কম হবে। তখন আপনার ইনকাম একজন চাকরিজীবীর চাইতে অনেক বেশি হবে। আর ফিক্স বায়ার পেয়ে গেলে তো অনলাইন মার্কেটপ্লেসে বিড করারো প্রয়োজন পরবে না।

তবে অনলাইনে কাজ করে আয় করতে গেলে কোন প্লাটফর্ম ধরে এগচ্ছেন সে বিষয়ে সতর্ক হতে হবে। অনলাইনে ইনকামের নানা সুযোগ থাকলেও কিছু কিছু ক্ষেত্রে প্রতারনার মুখে পড়তে হতে পারে। তাই ভালভাবে রিসোর্চ করে এ ধরনের প্রতারনা মূলক কাজ থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখতে হবে।

আর আপনি যদি যে কোন একটা বিষয়ে দক্ষ বা কোন সফটওয়্যার এর ব্যাবহার ভালভাবে পারেন। তাহলে আপনার জন্য আমার পরামর্শ হচ্ছে ফাইবার মার্কেটপ্লেস এ একটা অ্যাকাউন্ট খুলে আপনার এই সার্ভিসটি সেল করতে পারবেন। কিভাবে অ্যাকাউন্ট খুলবেন এবং পেমেন্ট নিবেন বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন এখানে

আর আপনার কোন প্রকার হেল্প লাগলে আমাদের ওয়েবসাইটের support Forum এ বলতে পারেন, ইমেইল করতে পারেন অথবা Grow Online ইউটিউব চ্যানেলে আমি তো আছিই।

Comments 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *